‘আ.লীগ বিরোধী ক্ষেত্র তৈরি করে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়’
  1. [email protected] : জাহিদ হাসান দিপু : জাহিদ হাসান দিপু
  2. [email protected] : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা
  3. [email protected] : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  4. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  5. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  6. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  7. [email protected] : আল-আসিফ ইলাহী রিফাত : আল-আসিফ ইলাহী রিফাত
  8. [email protected] : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  9. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  10. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  11. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  12. [email protected] : Sobuj Ali : Sobuj Ali
‘আ.লীগ বিরোধী ক্ষেত্র তৈরি করে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়’
বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৪৬ পূর্বাহ্ন

‘আ.লীগ বিরোধী ক্ষেত্র তৈরি করে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়’

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৬ আগস্ট, ২০২১
  • ২০ জন পড়েছেন

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, ১৭৯৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার আগে আওয়ামী লীগ বিরোধী একটি ক্ষেত্র তৈরি করা হয়েছিল। এর পেছনে ছিলেন জিয়াউর রহমান। আর তার পেছনে ছিল কয়েকটি দেশ। তারপর বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়। শুধু কিছু সেনাসদস্য এই হত্যাকাণ্ড ঘটায়নি।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়ন (আরইউজে) আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

সোমবার সকালে আরইউজের সম্মেলন কক্ষে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের জ্যেষ্ঠ পুত্র রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি খায়রুজ্জামান লিটন।

লিটন আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার আগে তখনকার কয়েকটি সংবাদমাধ্যম সরকারকে ব্যর্থ প্রমাণে নানা নেতিবাচক সংবাদ প্রকাশ করে। কিন্তু এখন বঙ্গবন্ধুর সব কাজেরই সত্য খবর বের হয়ে আসছে। দেখছি, আর অবাক হচ্ছি। দেশের এমন কোনো খাত নেই যার উন্নয়নে বঙ্গবন্ধু কাজ করেননি। যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশ পুনর্গঠনে বঙ্গবন্ধু কাজ করছিলেন। কিন্তু স্বাধীনতাবিরোধীরা তাকে নির্মমভাবে হত্যা করে।

আরইউজে সভাপতি রফিকুল ইসলাম সভায় সভাপতিত্ব করেন। সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল হকের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন- আরইউজের সাবেক সভাপতি প্রবীণ সাংবাদিক মুস্তাফিজুর রহমান খান আলম, আকবারুল হাসান মিল্লাত, আরইউজের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা তৈয়বুর রহমান প্রমুখ।

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আনু মোস্তফা, আরইউজের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান টুকু, কোষাধ্যক্ষ সরকার দুলাল মাহবুব, কার্যনির্বাহী সদস্য শরিফুল ইসলাম তোতা, জ্যেষ্ঠ আলোকচিত্রী আজাহার উদ্দিন, সেলিম জাহাঙ্গীর, সালাহউদ্দিন, সাংবাদিক জিয়াউল গণি সেলিম ও কবি শামীম হোসেনসহ আরইউজের সদস্য এবং বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকরা।

আলোচনা সভার শুরুতে বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগস্টের সব শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এছাড়া বঙ্গবন্ধু এবং তার পরিবারের শহীদ সদস্যদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন হাফেজ মাওলানা আবদুস সবুর।

সূত্রঃ যুগান্তর

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২১

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড