২৪ ঘণ্টায় ১২ জনের মৃত্যু: রাজশাহীতে সর্বাত্মক লকডাউন দাবি
  1. [email protected] : জাহিদ হাসান দিপু : জাহিদ হাসান দিপু
  2. [email protected] : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা
  3. [email protected] : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  4. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  5. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  6. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  7. [email protected] : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  8. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  9. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  10. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  11. [email protected] : Sobuj Ali : Sobuj Ali
২৪ ঘণ্টায় ১২ জনের মৃত্যু: রাজশাহীতে সর্বাত্মক লকডাউন দাবি
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০১:৩২ অপরাহ্ন

২৪ ঘণ্টায় ১২ জনের মৃত্যু: রাজশাহীতে সর্বাত্মক লকডাউন দাবি

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ৩০ মে, ২০২১
  • ৮০ জন পড়েছেন

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আরও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। রাজশাহী মেডিকেলে করোনায় মৃত্যুর এই সংখ্যা সর্বোচ্চ। এমন অবস্থায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে রাজশাহী অঞ্চলে দ্রুত সর্বাত্মক লকডাউন দাবি করা হয়েছে।

রোববার সকাল পর্যন্ত মৃতদের মধ্যে করোনা বিধ্বস্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলারই সাতজন রয়েছেন। বাকি দুজন রাজশাহীর দুজন নওগাঁ জেলার ও একজন নাটোর জেলার বাসিন্দা।

মৃতদের মধ্যে আটজন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বাকি চারজন উপসর্গ নিয়ে মেডিকেলের করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। এদের মধ্যে আইসিইউতে মারা গেছেন তিনজন।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী বলেন, রাজশাহীর করোনা পরিস্থিতিও ভীষণ খারাপ। রাজশাহীতেও অবিলম্বে লকডাউন ঘোষণা করা উচিত। প্রতিদিন যে সংখ্যক রোগী আসছে আমরা তাতে আরও বেশি শঙ্কিত।

তিনি অব্যাহত সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির প্রসঙ্গে বলেন, হাসপাতালে করোনা রোগীদের আর জায়গা দেওয়া যাচ্ছে না। কয়েক দিন পর পরই করোনা বেড বাড়ানো হচ্ছে। তাতেও রোগীর সংকুলান করা যাচ্ছে না। আমরা স্থানীয় প্রশাসনকে-এমনকি স্বাস্থ্য অধিদপ্তরেও জানিয়েছি এক সপ্তাহ আগে রাজশাহীতে কঠোর লকডাউন দিতে।

মেডিকেল পরিচালক আরও বলেন, গত বছর মার্চে দেশে করোনা শুরুর পর থেকে রাজশাহী মেডিকেলে একদিনে একসঙ্গে এতজনের মৃত্যু আগে হয়নি। পরিস্থিতি খুবই ভয়ঙ্কর এবং সেই সঙ্গে ভীতিকরও।

পরিচালক বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের যে আটজনের নমুনায় ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে তাদের বিষয়ে খোঁজখবর নেওয়া শুরু করেছি। তারা এখন কোথায় কী অবস্থায় আছেন তা জানার চেষ্টা করছি। এই সংক্রান্ত বিষয়টি রোববার আমরা নিশ্চিত হয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে আসা চিঠিতে।

 রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস বলেন, বর্তমানে রাজশাহী মেডিকেলে আক্রান্ত ২০৭ করোনা রোগী চিকিৎসাধীন।

তিনি আরও বলেন, রাজশাহী অঞ্চলে দ্রুত কঠোর লকডাউন আরোপ ছাড়া পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের কোনো পথ নেই।

তিনি করোনার এই ছোবল থেকে বাঁচতে সবাইকে ঘরে থাকা, জরুরি প্রয়োজনে বাহিরে গেলে মাস্ক পরিধানের পরামর্শ দেন।  

মেডিকেল পরিচালক বলেন, যেহেতু চাঁপাইনবাবগঞ্জের সঙ্গে রাজশাহীর মানুষের চলাচল হচ্ছে সেখানে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট রাজশাহীতেও ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা এখন বাস্তবতা। কারণ চাঁপাইনবাবগঞ্জে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ এখন হাতে-কলমে প্রমাণিত।

এদিকে মেডিকেল হাসপাতালে সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহী মেডিকেলে বর্তমানে ২০৪ জন করোনাক্রান্ত রোগী চিকিৎসাধীন। এদের মধ্যে ৯৪ জন চাঁপাইনবাবগঞ্জের। ৭৭ জন রাজশাহীর এবং বাকিগুলো বিভাগের অন্য জেলার। 

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২১

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড