1. [email protected] : জাহিদ হাসান দিপু : জাহিদ হাসান দিপু
  2. [email protected] : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা
  3. [email protected] : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  4. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  5. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  6. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  7. [email protected] : আল-আসিফ ইলাহী রিফাত : আল-আসিফ ইলাহী রিফাত
  8. [email protected] : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  9. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  10. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  11. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  12. [email protected] : Sobuj Ali : Sobuj Ali
বাতজ্বরের জটিলতা
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৪:২৪ পূর্বাহ্ন

বাতজ্বরের জটিলতা

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৮ মে, ২০২১
  • ১৫০ জন পড়েছেন

মাস্টার আবির, ১৪ বছর বয়স। মাঝে মাঝে গলাব্যথা হয়, ৩ দিন ধরে বাম হাঁটুর গিরা ফুলেছে এবং হাঁটতে পারে না। ৭ দিন আগে তার ডান হাঁটুর ব্যথা হয়েছিল এবং ব্যথার ওষুধ খাওয়ার পর এখন ডান হাঁটুর ব্যথা কম। আবিরের বাতজ্বর সংক্রান্ত পরীক্ষা করা হলো। 

আবিরকে ২১ দিন অন্তর অন্তর বাতজ্বরের প্রতিরোধমূলক পেনিসিলিন ইনজেকশন দিতে বলা হয় ১৯ বছর বয়স পর্যন্ত এবং মাঝে মাঝে ফলোআপের জন্য আসতে বলা হলো। আবিরের অভিভাবক প্রশ্ন করলেন- আবিরের কি বাতজ্বর, গিরা ছাড়াও হৃৎপিণ্ড আক্রমণ করতে পারে কিনা? 

ডা. মো. তৌফিকুর রহমান : হ্যাঁ বাতজ্বরে আবিরের প্রথম যেমন হাঁটু আক্রান্ত হয়েছে, তেমনি অন্যান্য গিরা সাধারণত বড় গিরাগুলো আক্রান্ত হতে পারে। সেই সঙ্গে হৃৎপিণ্ডের বাল্ব মাংসপেশিতে এবং বাহিরের পর্দাও আক্রান্ত হতে পারে। সেজন্যই আবিরকে প্রতি ৩-৬ মাস অন্তর অন্তর ফলোআপে আসতে হবে এবং মাঝে মাঝে ইকোকাডিগ্রাম পরীক্ষা করার প্রয়োজন হতে পারে। 

মাস্টার লিমন, ১৫ বছর বয়স। মাঝে মাঝে গলাব্যথা করে, এখন ৪ দিন ধরে প্রচণ্ড জ্বর বুক ধড়ফড় ও নিঃশ্বাসে কষ্ট হচ্ছে। লিমনকে শারীরিক পরীক্ষার পাশাপাশি বাতজ্বর সংক্রান্ত রক্ত পরীক্ষা ইকোকার্ডিওগ্রাম ও অন্যান্য পরীক্ষা করা হলো। 

লিমনের বাতজ্বর রোগ ধরা পড়ার পাশাপাশি বাতজ্বর হৃৎপিণ্ডের বাল্ব আক্রান্ত হওয়া ধরা পড়ল। লিমনকে বাতজ্বরের ওষুধ দেওয়ার পাশাপাশি পরবর্তীতে বাতজ্বর আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমানোর প্রতিরোধ পেনিসিলিন ইনজেকশন ২১ দিন পর পর নিতে বলা হলো এবং বাতজ্বরে বাল্ব আক্রান্ত হওয়ায় বিশ্রামের পরামর্শ দেওয়া হলো। 

লিমনের অভিভাবক প্রশ্ন করলেন, লিমনের কি আবারও ভবিষ্যতে বারবার বাতজ্বরে আক্রান্ত হতে পারে? 
ডা. মো. তৌফিকুর রহমান : হ্যাঁ, লিমন বারবার বাতজ্বরে আক্রান্ত হতে পারে, তবে যাতে ভবিষ্যতে আর আক্রান্ত না হয় সেজন্যই লিমনকে প্রতি ২১ দিন পরপর ইনজেকশন নিতে হবে। 
অভিভাবক: ওষুধ নিয়মিত না খেলে ভবিষ্যতে লিমনের কি কোনো জটিলতা হতে পারে? 

ডা. তৌফিকুর রহমান: হ্যাঁ, নিয়মিত বাতজ্বরের ট্যাবলেট বা ইনজেকশন না নিলে ভবিষ্যতে লিমনের বাল্ব মোটা হয়ে যেতে পারে। তাতে বাল্বের মুখ অত্যন্ত সরু হতে পারে, যাকে আমরা স্টেনোসিস বলি, অথবা বাল্ব বেশি নষ্ট হয়ে বাল্বের কাজ নষ্ট হতে পারে, ফলে বাল্ব লিক করতে পারে। একে রিগারজিটেশন বলে। 

বাল্বের বেশি পরিমাণ নষ্ট হলে ভবিষ্যতে বাল্ব কৃত্রিম বাল্ব দ্বারা পরিবর্তন করার প্রয়োজন হতে পারে অথবা বেলুন দিয়ে বাল্বের মুখ বড় করার প্রয়োজন হতে পারে, যা অত্যন্ত ব্যয়বহুল ও রোগীর জন্য কষ্টদায়ক। 

এছাড়াও বারবার বাল্ব আক্রান্ত হলে হৃৎপিণ্ডের মাংসপেশি আক্রান্ত হলে অথবা বাল্ব আক্রান্ত হলে রোগীর হার্ট ফেইলিওর হতে পারে অথবা হৃৎপিণ্ডের চারপাশে পর্দা আক্রান্ত হলে হৃৎপিণ্ডের চারপাশে পানি জমতে পারে; যাকে পেরিকার্ডিয়াল ইফিওশান বলে। 

মিস ফারিয়া, ১৬ বছর বয়স। গত ৫ দিন প্রচণ্ড জ্বর, গিরাব্যথা, বুক ধড়ফড় ও শ্বাসকষ্ট হচ্ছে। ফারিয়াকে বাতজ্বরের ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় পরীক্ষা করার পর ইকোকর্ডিওগ্রামে ধরা পড়ল ফারিয়ার হৃৎপিণ্ডের বাল্ব মারাত্মভাবে আক্রান্ত ও হৃৎপিণ্ডের মাংসপেশি আক্রান্ত হয়ে হৃৎপিণ্ডের কার্যক্ষমতা হ্রাস পেয়েছে। ফারিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলো এবং পূর্ণ বিশ্রামসহ অন্যান্য ওষুধ দেয়া হলো। ১ সপ্তাহ পর ফারিয়ার শ্বাসকষ্ট ও বুক ধড়ফড় কমে গেল। 

ফারিয়ার অভিভাবকরা কতগুলো প্রশ্নের উত্তর জানতে চান ও কিছু পরামর্শ চান- 

অভিভাবক : ফারিয়ার বর্তমান হৃৎপিণ্ডের যে ক্ষতি হলো তা কি ভালো হবে? 

ডা. মো. তৌফিকুর রহমান : হ্যাঁ, ফারিয়ার হৃৎপিণ্ডে বাল্ব ও মাংসপেশিতে আক্রান্ত হওয়ার ফলে যে হার্ট ফেইলিওর হয়েছে তা আস্তে আস্তে উন্নতি হবে এমনকি হৃৎপিণ্ডের কার্যক্ষমতা যে হ্রাস পেয়েছে তা আস্তে আস্তে উন্নতি হয়ে স্বাভাবিক হয়ে আসতে পারে নিয়মিত ওষুধ খেলে।

মিসেস খাতুন, ৩০ বছর বয়স। গত ২ মাস ধরে শ্বাসকষ্ট হয় একটু বেশি পরিশ্রম করলে, সিঁড়ি দিয়ে উঠতে গেলে। প্রয়োজনীয় পরীক্ষায় ধরা পড়ল, তার হৃদযন্ত্রের মাইট্রাল বাল্ব সরু হয়েছে এবং সে কারণে রক্ত পরিমাণমতো বাল্ব দিয়ে অতিক্রম করতে না পারায় রক্ত ফুসফুসে জমা হয়ে ফুসফুসের রক্তনালির রক্তচাপ বেড়ে গেছে। 

রোগীকে আরও প্রয়োজনীয় পরীক্ষার পর কিছু ওষুধ প্রদান করা হলো। রোগীর ১০ দিন পর শ্বাসকষ্ট কমে গেল এবং নিয়মিত ওষুধ খাওয়ার পরামর্শ দেয়া হলো। মিসেস খাতুন কিছু প্রশ্নের উত্তর জানতে চান ও কিছু পরামর্শের জন্য বলেন।

মিসেস খাতুন : বাল্ব কেন সরু হলো? 

ডা. মো. তৌফিকুর রহমান : বাতজ্বর বারবার আক্রান্ত হলে বাল্ব সরু হতে পারে। 

মিসেস খাতুন : কিন্তু আমার তো কখনোই বাতজ্বর বা গিরাব্যথা ছিল না। 

ডা. মো. তৌফিকুর রহমান : সাধারণত ৫০ ভাগ ক্ষেত্রে যাদের হার্টের বাল্ব আক্রান্ত হয়েছে কোনো সুনির্দিষ্ট বাতজ্বরের ইতিহাস পাওয়া যায় না। তাই যদি কারো গিরাব্যথা বা গিরা ফোলা নাও থাকে কিন্তু ঘন ঘন জ্বর ও গলাব্যথা হয় তাদের হৃদরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেয়া ও ফলোআপে থাকা উচিত। 

মিসেস খাতুন : ভবিষ্যতে কি এই রোগের জন্য অপারেশন লাগতে পারে? 

ডা. মো. তৌফিকুর রহমান : নিয়মিত ওষুধ খেলে সাধারণত এ রোগ আর বাড়ে না, তখন নিয়মিতভাবে ফলোআপে থাকা উচিত যে হৃৎপিণ্ডের বাল্বের সরু হওয়ার পরিমাণ বা মাত্রা ক্রমশ বাড়ছে কি না। 

যদি পর্যাপ্ত ওষুধ খাওয়ার পরও রোগীর শ্বাসকষ্ট হয় এবং বাল্বের সরু হওয়ার মাত্রা বেশি হয় তবে সেক্ষেত্রে ইন্টারভেনশনের মাধ্যমে বাল্ব মোটা করা অথবা অপারেশনের মাধ্যমে বাল্বের মুখ মোটা করা বা বাল্ব পরিবর্তন করে কৃত্রিম বাল্ব সংযোজন করা লাগতে পারে। 

মিসেস আ. বেগম, ৫০ বছর বয়স। থাকেন কুড়িগ্রামে। গত ৫ মাস ধরে বুক ধড়ফড় করে ও ২ মাস ধরে শ্বাসকষ্ট হয়। কিন্তু গত ৩ দিন আগে হঠাৎ করে বামপাশে দুর্বল ও অবশ হয়ে গেছে। 
মিসেস আ. বেগমকে প্রয়োজনীয় পরীক্ষার পাশাপাশি ইকোকার্ডিওগ্রামে ধরা পড়ল যে রোগীর হৃৎপিণ্ডের বামপাশের একটি বাল্ব মাইট্রাল বাল্বের মুখ সরু হয়ে গেছে এবং হৃৎপিণ্ডের বাম অলিন্ডে রক্তের জমাট বেঁধে এবং ইসিজিতে দেখা গেল রোগীর অনিয়মিত হৃদস্পন্দন। 

ব্রেইনের সিটি স্ক্যান পরীক্ষার দেখা গেল ডানপাশে ব্রেইন স্ট্রোক হওয়ার পাশাপাশি অবশ হয়ে গেছে। তাই রোগীর রোগগুলো হলে মাইট্রাল স্টেটোনোফ সঙ্গে লেফ্ট এট্রিয়াল থ্রোম্বাস আছে এট্রিয়াল ফিব্রিলেশন ও ইস্কোমিক স্ট্রোক। মিসেস আ. বেগম কিছু প্রশ্নের উত্তর জানতে চান ও 
এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় পরামর্শ চান- 

আ. বেগম : তার কেন হৃৎপিণ্ডের বাল্ব সরু হল?
ডা. মো. তৌফিকুর রহমান : বাতজ্বর বারবার হৃৎপিণ্ডের বাল্ব আক্রান্ত হলে বাল্ব সরু হতে পারে।

আ. বেগম : বাম পাশ অবশ কেন হল? 

ডা. মো. তৌফিকুর রহমান : অনেক সময় বাতজ্বর হৃৎপিণ্ডের বাল্ব আক্রান্ত হয়ে বেশি সরু হয়ে গেছে বাম অলিন্ডে বড় হয়ে অলিন্দের কার্যক্ষমতা কমে গিয়ে অলিন্ডের অনিয়মিত হৃদস্পন্দন হতে পারে ফলে বাম অলিন্ডে রক্ত জমাট বাঁধতে পারে এবং এই জমাট বাঁধা রক্ত আলিন্দ থেকে ব্রেইনে চলে যেতে পারে এবং বন্ধ হতে পারে ফলে ব্রেইন স্ট্রোক হতে পারে।

প্রফেসর (ডা.) মো. তৌফিকুর রহমান (ফারুক)

এমবিবিএস (ডিএমসি), এমডি (কার্ডিওলজি), এফসিপিএস (মেডিসিন), এফএসিসি (আমেরিকা), এফএসিপি, এফএএসই, এফআরসিপি, এফসিসিপি, এফইএসসি, এফএএইচএ, এফএপিএসআইসি

অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান, কার্ডিওলজি, চেম্বার : মেডিনোভা, মালিবাগ মোড়, হোসাফ টাওয়ার।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বাধিক জনপ্রিয়

টুইটারে আমরা

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২১

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড