1. [email protected] : জাহিদ হাসান দিপু : জাহিদ হাসান দিপু
  2. [email protected] : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা
  3. [email protected] : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  4. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  5. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  6. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  7. [email protected] : আল-আসিফ ইলাহী রিফাত : আল-আসিফ ইলাহী রিফাত
  8. [email protected] : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  9. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  10. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  11. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
ইসরাইলকে নিয়ে বাইডেন একটি সরু দড়ির ওপর হাঁটছেন
মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১১:১০ পূর্বাহ্ন

ইসরাইলকে নিয়ে বাইডেন একটি সরু দড়ির ওপর হাঁটছেন

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২২ মে, ২০২১
  • ৯৪ জন পড়েছেন

মার্কিন সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা চাক শুমারের মত ঘোরতর ইসরাইলি সমর্থকও যখন যুদ্ধবিরতির কথা বলেছেন, দেশটির প্রেসিডেন্ট বাইডেন তখনও চুপ ছিলেন। যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের একটি প্রস্তাবও আটকে দেয় হোয়াইট হাউজ। 

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম এক প্রতিবেদনে ফিলিস্তিন ইস্যুতে ইসরাইলের বিষয়ে বাইডেনের অবস্থানকে তাদের প্রতিবেদনে ‘বাইডেন একটি সরু দড়ির ওপর হাঁটছেন’ বলে উল্লেখ করেছে।

বাইডেনকে সনাতনী ধারার উল্লেখ করে প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘ওয়াশিংটনে কংগ্রেসর ভেতর ইসরাইল নিয়ে ডেমোক্র্যাটদের মধ্যে বিতর্কের গতিধারায় বেশ কিছুদিন ধরে পরিবর্তন লক্ষ্য করা যাচ্ছে , কিন্তু হোয়াইট হাউজের কাজে তার ছিটেফোঁটা প্রতিফলন সবে দেখা দিতে শুরু করেছে। বাইডেনের সঙ্গে নেতানিয়াহুর প্রথম টেলিফোন আলাপ নিয়ে যে বিবৃতি দেয়া হয়, তাতে ইসরাইলের বিন্দুমাত্র সমালোচনা ছিল না, বরঞ্চ ইসরাইলের আত্মরক্ষার অধিকারের কথাই তুলে ধরা হয়। আর এই সংঘাত শুরুর ঠিক আগেই ইসরাইলকে প্রায় ৭৪ কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রির এক চুক্তি অনুমোদন করেন বাইডেন। সন্দেহ নেই বাইডেন একটি সরু দড়ির ওপর হাঁটছেন।’

প্রতিবেদনে আরও উল্লেখ করা হয়, কংগ্রেসে বাইডেনের গুরুত্বপূর্ণ পরিকল্পনাগুলো পাস করাতে দলের বামপন্থী অংশের সমর্থন তার জন্য জরুরি। এখন পর্যন্ত দলের এই অংশটি প্রেসিডেন্টকে সমর্থন করছে, কিন্তু ইসরাইলের যে আচরণকে তারা মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন হিসাবে দেখে সেগুলোকে যদি প্রেসিডেন্ট পাত্তা না দেন তাহলে তাকে ত্যাগ করতে তারা দ্বিধাবোধ করবে না।

বিদেশ নীতিতে, বিশেষ করে আমেরিকার মধ্যপ্রাচ্য নীতিতে, জনমতের এই প্রতিফলন এখনো তেমন নেই । মি বাইডেন এখনও বিষয়টিকে ততটা গ্রাহ্য করছেন না। কিন্তু ডেমোক্র্যাট শিবিরের ইসরাইলি সমর্থকরা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ছেন।  

রাজনীতিকরা তদের সমর্থকদের বেশিদিন অবজ্ঞা করে টিকে থাকতে পারেন না বলে উল্লেখ করা হয় প্রতিবেদনে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২১

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড