এল সালভাদরে পুলিশ কর্মকর্তার বাড়ি থেকে পুঁতে রাখা ১০ লাশ উদ্ধার
  1. [email protected] : জাহিদ হাসান দিপু : জাহিদ হাসান দিপু
  2. [email protected] : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা
  3. [email protected] : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  4. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  5. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  6. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  7. [email protected] : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  8. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  9. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  10. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  11. [email protected] : Sobuj Ali : Sobuj Ali
এল সালভাদরে পুলিশ কর্মকর্তার বাড়ি থেকে পুঁতে রাখা ১০ লাশ উদ্ধার
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৫:০৩ পূর্বাহ্ন

এল সালভাদরে পুলিশ কর্মকর্তার বাড়ি থেকে পুঁতে রাখা ১০ লাশ উদ্ধার

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৬ মে, ২০২১
  • ৯৭ জন পড়েছেন

মধ্য আমেরিকার দেশ এল সালভাদরে সাবেক এক পুলিশ কর্মকর্তার বাড়িতে পুঁতে রাখা ১০ নারী ও শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে সাত নারী ও তিন শিশু রয়েছেন।

দেশটির পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর চালচুআপায় ওই পুলিশ কর্মকর্তার বাড়িতে একটি মামলার তদন্ত চালাতে গিয়ে এ লাশগুলো উদ্ধার হয়।  খবর আলজাজিরার।

দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেলের দপ্তর জানায়, ৫১ বছর বয়সি হুগো ওসোরিও চাভেজ ওসোরিও নামে ওই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও ১৩টি খুনের মামলার তদন্ত চলছে।

এক নারী ও তার মেয়েকে হত্যার অভিযোগে গত শনিবার গ্রেফতার হন হুগো।  পুলিশের কাছে এ হত্যার কথা তিনি স্বীকার করেছেন। ওই নারীর সাহায্য চেয়ে আকুতি জানালে এক প্রতিবেশী তা শুনতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেন।

পুলিশ কর্মকর্তারা ওই বাড়িতে গিয়ে ৫৭ বছরের ওই নারী ও তার ২৬ বছরের মেয়েকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। মা-মেয়ের অবস্থা দেখে প্রাথমিকভাবে তাদের যৌন নির্যাতন করা হয়েছিল বলে পুলিশের সন্দেহ হয়। তদন্তের অংশ হিসেবে ওই ব্যক্তির নামে বিভিন্ন স্থানে থাকা সম্পদ তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

তদন্ত কর্মকর্তারা জানান, যৌন হয়রানির দায়ে ২০০৫ সালে হুগো চাকরি হারান ও পাঁচ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করেন।

নিহতদের মধ্যে সাত বছরের এক মেয়েশিশু এবং ২ ও ৯ বছরের দুই ছেলেশিশু রয়েছে। ওই পুলিশ কর্মকর্তার বাড়ি থেকে আরও সাতটি কবরে পাওয়া লাশের বিষয়েও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ওই এলাকার অন্তত ২৫ জন নিখোঁজ আছেন।

অ্যাটর্নি জেনারেলের অফিস টুইটারে জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে কয়েকজনকে দুই বছর আগে হত্যা করা হয়েছে। আট নারীসহ মোট ১৩ জনকে হত্যাকাণ্ডে সহযোগিতার অভিযোগে আরও ৯ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২১

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড