ইসরাইলের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে জর্ডান-লেবাননের বিক্ষোভকারীরা (ভিডিও)
  1. [email protected] : জাহিদ হাসান দিপু : জাহিদ হাসান দিপু
  2. [email protected] : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা
  3. [email protected] : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  4. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  5. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  6. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  7. [email protected] : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  8. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  9. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  10. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  11. [email protected] : Sobuj Ali : Sobuj Ali
ইসরাইলের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে জর্ডান-লেবাননের বিক্ষোভকারীরা (ভিডিও)
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০২:৪৬ অপরাহ্ন

ইসরাইলের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে জর্ডান-লেবাননের বিক্ষোভকারীরা (ভিডিও)

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৫ মে, ২০২১
  • ৮৯ জন পড়েছেন

অধিকৃত পশ্চিম তীরের কাছে সীমান্ত পেরিয়ে ইসরাইলি ভূখণ্ডে ঢুকে পড়ার চেষ্টা করছেন জর্ডানের ফিলিস্তিনপন্থী শত শত নাগরিক। একই ধরণের চেষ্টা করেছে লেবাননের একদল বিক্ষোভকারী।

অধিকৃত পশ্চিম তীরের ফিলিস্তিনি জেরিকো শহরের বিপরীত দিকে জর্ডান উপত্যকার কাছের ইসরাইলের অ্যালেবি সেতুর পাঁচ কিলোমিটার এলাকার মধ্যে জড়ো হয়েছিলেন জর্ডানের নাগরিকরা।

গাজায় ইসরাইলি হামলার প্রতিবাদে জর্ডানের ক্ষুব্ধ এই নাগরিকরা সেখানে ঢোকার চেষ্টা করেন। তবে জর্ডানের দাঙ্গা পুলিশের অভিযানে তারা সরে যান। 

এদিকে শুক্রবার সীমান্ত পার হয়ে ইসরাইলের মেতুলা শহরে ঢুকে যান লেবাননের একদল বিক্ষোভকারী। তাদের ওপর ‘সতর্কতামূলক’ গুলি ছোড়ার দাবি করেছে ইসরাইলি বাহিনী। এতে অন্তত এক লেবানিজ নাগরিক নিহত হয়েছেন।

ইসরাইলের সামরিক বাহিনী বলছে, ফিলিস্তিন এবং লেবাননের প্রায় দুই ডজন তরুণ সীমান্তে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করেছেন। তবে তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজন ইসরাইলে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করেন। লেবাননের ভূখণ্ডে ফিরে যাওয়ার আগে ওই তরুণরা সীমান্তে বিক্ষোভ করেছেন এবং সেখানে আগুন ধরিয়ে দেন। 

এদিকে জীবন বাঁচাতে বাড়িঘর ছেড়ে চলে যাচ্ছেন হাজার হাজার ফিলিস্তিনি। এ পর্যন্ত অন্তত ১০ হাজার ফিলিস্তিনি নিজেদের বাড়িঘর ছেড়েছে বলে জাতিসংঘ জানিয়েছে। 

সংস্থাটির এক বিবৃতিতে বলা হয়, করোনা মহামারিতে এসব ফিলিস্তিনি স্কুল, মসজিদ এবং অন্যান্য জায়গায় আশ্রয় নিচ্ছে। সেখানে পানি, খাদ্য ও চিকিৎসাসেবা পর্যাপ্ত নয়। এছাড়া মহামারিতে স্বাস্থ্যবিধিও মেনে চলার সুযোগ নেই।

জাতিসংঘ আশা করছে, ফিলিস্তিনি গ্রুপগুলো এবং ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ অবিলম্বে সেখানে মানবাধিকার কর্মীদের যাওয়ার অনুমতি দেবে। যাতে করে তারা জ্বালানি, খাদ্য এবং চিকিৎসা দিতে পারে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, সেখানের হাসপাতাল ও স্যানিটেশন সেবাগুলো বিদ্যুতের উপর নির্ভর করে। কিন্তু বিদ্যুৎ উৎপাদনের জ্বালানি রোববার থেকে শেষ হয়ে যাবে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২১

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড