টিকায়ও দমছে না ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা
  1. [email protected] : জাহিদ হাসান দিপু : জাহিদ হাসান দিপু
  2. [email protected] : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা
  3. [email protected] : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  4. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  5. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  6. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  7. [email protected] : আল-আসিফ ইলাহী রিফাত : আল-আসিফ ইলাহী রিফাত
  8. [email protected] : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  9. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  10. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  11. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  12. [email protected] : Sobuj Ali : Sobuj Ali
টিকায়ও দমছে না ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা
বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:২২ অপরাহ্ন

টিকায়ও দমছে না ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ৯ মে, ২০২১
  • ৯০ জন পড়েছেন

করোনাভাইরাসের ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে এবার উদ্বেগের কথা জানালেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্য স্বামীনাথন।

তিনি বলেছেন, ভারতে করোনার যে ধরনটি ছড়াচ্ছে, তা অনেক বেশি সংক্রামক। করোনার এ ধরনটি সম্ভবত টিকা দিয়েও দমন করা যাচ্ছে না। এ কারণেই ভারতের এই ভয়াবহ পরিস্থিতি।খবর এএফপির।

সৌম্য স্বামীনাথন শনিবার আন্তর্জাতিক একটি বার্তা সংস্থাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেছেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানী সতর্ক করে বলেন, ভারতে আমরা মহামারির যে বৈশিষ্ট্যগুলো দেখছি, তা এটাই ইঙ্গিত করছে যে এটা অত্যন্ত দ্রুত ছড়িয়ে পড়া করোনার ধরন।

ভারতে শুক্রবার করোনায় মৃত্যুর নতুন রেকর্ড হয়েছে। এদিন দেশটিতে করোনায় সংক্রমিত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ১৮৭ জনের। শনাক্ত হয়েছেন ৪ লাখ ১ হাজার মানুষ। ভারতে এই প্রথম এক দিনে চার হাজারের বেশি মৃত্যুর ঘটনা ঘটল। আর এক সপ্তাহে চতুর্থবারের মতো দৈনিক সংক্রমণ চার লাখ ছাড়াল।

ভারতে করোনার যে ধরনটি ছাড়াচ্ছে, সেটি ‘বি.১.৬১৭’ নামে পরিচিত। করোনার এই ধরনটি ভারতে গত বছরের অক্টোবরে প্রথম শনাক্ত হয়। এই ধরনটিকে অতি সংক্রামক বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্য স্বামীনাথন বলেন, ভারতে করোনার বিপর্যয়কর পরিস্থিতি সৃষ্টির ক্ষেত্রে ‘বি.১.৬১৭’ ধরনটি সুস্পষ্টভাবে ভূমিকা রাখছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান এই বিজ্ঞানী বলেন, ভারতের করোনা পরিস্থিতির অবনতির পেছনে অনেক বিষয় কাজ করেছে। তার মধ্যে অধিক দ্রুত ছড়িয়ে পড়া করোনার ধরন অন্যতম একটি বিষয়।

করোনার ‘বি.১.৬১৭’ ধরনটি ভারতের বাইরে বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। করোনার ভারতীয় ধরন বাংলাদেশে শনাক্ত হওয়ার ঘোষণা শনিবারই এসেছে।

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ বিভিন্ন দেশের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ করেনার ভারতীয় ধরনটিকে (বি.১.৬১৭) ‘উদ্বেগজনক ধরন’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করার বিষয়টি বিবেচনা করছে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২১

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড