অন্তঃসত্ত্বা প্রেমিকাকে হত্যার অভিযোগ অলিম্পিক বক্সারের বিরুদ্ধে
  1. [email protected] : জাহিদ হাসান দিপু : জাহিদ হাসান দিপু
  2. [email protected] : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা
  3. [email protected] : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  4. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  5. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  6. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  7. [email protected] : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  8. [email protected] : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  9. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  10. [email protected] : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  11. [email protected] : Sobuj Ali : Sobuj Ali
অন্তঃসত্ত্বা প্রেমিকাকে হত্যার অভিযোগ অলিম্পিক বক্সারের বিরুদ্ধে
রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০২:৩২ অপরাহ্ন

অন্তঃসত্ত্বা প্রেমিকাকে হত্যার অভিযোগ অলিম্পিক বক্সারের বিরুদ্ধে

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৪ মে, ২০২১
  • ৫৫ জন পড়েছেন

পুয়ের্তো রিকার এক বক্সারের বিরুদ্ধে তার অন্তঃসত্ত্বা প্রেমিকাকে অপহরণ ও হত্যার অভিযোগ উঠেছে।এ ঘটনার প্রতিবাদে মানবাধিকারকর্মীরা আন্দোলনে নেমেছেন।

২০১২ সালে লন্ডন অলিম্পিকে অংশ নিয়েছিলেন ফেলিক্স ভারদেজো নামে এই বক্সার। খবর বিবিসির।

ফেলিক্সের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি তার প্রেমিকা কেইসলা রদ্রিগেজকে হত্যা করে তার মরদেহ মার্কিন দ্বীপ অঞ্চলটির রাজধানী সান হুয়ানের কাছে একটি সেতু থেকে ফেলে দেন।  

পুলিশ জানিয়েছে, এ ব্যাপারে তদন্তে সহযোগিতা করতেও অস্বীকার করছেন ফেলিক্স।

২৭ বছর বয়সি বিবাহিত লাইটওয়েট বক্সার ফেলিক্সের বিরুদ্ধে অপহরণ, গাড়ি ছিনতাই, অনাগত শিশু ও ইচ্ছাকৃত হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগে বলা হয়, ফেলিক্স তার প্রেমিকাকে বেঁধে সেতু থেকে ফেলে দেওয়ার আগে মুখে ঘুষি মারেন।

জানুয়ারিতে, দ্বীপটিতে নারীদের প্রতি সহিংসতার কারণে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়। স্থানীয় মানবাধিকার সংগঠন জানায়, পুয়ের্তো রিকোয় প্রতি বছর কমপক্ষে ৬০টির মতো নারী হত্যার ঘটনা ঘটে। সপ্তাহে কমপক্ষে একজন নারী এই নৃশংসতার শিকার হন।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বাধিক জনপ্রিয়

টুইটারে আমরা

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড