1. khulna@nongor.news : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা
  2. news-desk@nongor.news : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  3. nisan@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  4. mdashik.ullah393@gmail.com : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  5. rabbi@nongor.news : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  6. sultanashaila75@gmail.com : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  7. sakia@nongor.news : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  8. ronia3874@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  9. sarowar@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
ভারতে পাচার হওয়া ৮ নারী দেশে ফিরলেন
বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৫২ অপরাহ্ন

ভারতে পাচার হওয়া ৮ নারী দেশে ফিরলেন

মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২০ মার্চ, ২০২১
  • ১১০ জন পড়েছেন

ভালো কাজের প্রলোভনে পড়ে বিভিন্ন সময় দালালের মাধ্যমে ভারতে পাচার হওয়া আট বাংলাদেশি নারীকে ভারত সরকারের দেয়া বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে শুক্রবার (১৯ মার্চ) বিকেলে তাদেরকে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে ভারতের পেট্রোপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ।

দেশে ফেরা আট নারী হলেন- যশোরের বেনাপোলের সুলতান মোল্লার মেয়ে ময়না বেগম, শার্শার জয়নাল আবেদীনের মেয়ে রেশমা খাতুন, খুলনার জয়দেব শেখের মেয়ে মিনা শেখ, সাতক্ষীরা জেলার কাশেম মোল্লার মেয়ে শান্তি বেগম, একই জেলার আব্দুল সাত্তারের মেয়ে সাবিনা খাতুন, আজিবার লস্করের মেয়ে বিলাসী পাপিয়া, ওয়াজেদ আলীর মেয়ে ফাতিমা খাতুন ও দীন ইসলামের মেয়ে হীরা মনি।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, ফেরত আসা আট বাংলাদেশি নারীকে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ আমাদের কাছে হস্তান্তর করেছে। কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাদের বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়।

বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি, অপারেশন আজিজুল হক জানান, থানার আনুষ্ঠানিকতা শেষে সন্ধ্যায় ওই আট নারীকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার নামের একটি এনজিও সংস্থার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তাদেরকে পরিবারের কাছে পৌঁছে দেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

এনজিও সংস্থার যশোরের সিনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার শাওলী সুলতানা জানান, ভুক্তভোগীরা বিভিন্ন সময় দালালের প্রলোভনে পড়ে দেশের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে অবৈধ পথে ভারতে মুম্বাইয়ে পাচার হয়ে মুম্বাই পুলিশের হাতে আটক হয়ে প্রায় দেড় বছর কারাভোগ করেন। পরবর্তীতে মুম্বাইয়ের ‘নব জীবন’ নামে একটি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের শেল্টার হোমে রাখে। এরপর দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে চিঠি চালাচালির মাধ্যমে গগকাল তাদেরকে ভারত সরকারের দেয়া ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে দেশে ফেরত পাঠানো হয়। 

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড