1. khulna@nongor.news : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা
  2. news-desk@nongor.news : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  3. nisan@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  4. mdashik.ullah393@gmail.com : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  5. rabbi@nongor.news : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  6. sultanashaila75@gmail.com : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  7. sakia@nongor.news : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  8. ronia3874@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  9. sarowar@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
শিশু দুটির প্রস্রাবের রাস্তা একটি মলদ্বার নেই
বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ১০:৩৪ পূর্বাহ্ন

শিশু দুটির প্রস্রাবের রাস্তা একটি মলদ্বার নেই

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১ মার্চ, ২০২১
  • ১৫৭ জন পড়েছেন

পটুয়াখালীতে জোড়া লাগানো শিশুর জন্ম হয়েছে। রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১টার দিকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাদের জন্ম হয়। বর্তমানে শিশু দুটি ও তার মা গাইনি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন।

সদর উপজেলার লোহালিয়া ইউনিয়নের বাসিন্দা বশির শিকদার (২৫) ও রেখা বেগম দম্পতির প্রথম সন্তান তারা। 

শিশু দুটির বাবা বশির শিকদার জানান, আমাদের বিয়ের এক বছর পরে বাচ্চা নিলাম। অপারেশনের পর জানতে পারলাম জোড়া লাগানো শিশু হয়েছে।

পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, শিশু দুটির হাত-পা ও হৃদপিণ্ড আলাদা। তবে তাদের প্রস্রাবের রাস্তা একটি এবং মলদ্বার নেই। স্বাভাবিকভাবে অক্সিজেন গ্রহণ করছে।

তিনি বলেন, কোনো খাবার জাতীয় কিছু দেওয়া যাবে না আপাতত। যতক্ষণ না পর্যন্ত তাদের পায়খানার রাস্তা পাওয়া না যায়। পটুয়াখালীতে শিশু সার্জন না থাকায় তাদের জন্য এখানে কিছু সম্ভব নয়। তাই আমরা তাদের বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজে রেফার্ড করেছি। পটুয়াখালীতে এ রকম ঘটনা প্রথম বলেও জানান তিনি।

এদিকে জোড়া শিশুদের স্পেশাল নবজাতক পরিচর্যা কেন্দ্রে (স্কানু) মেডিকেল অফিসার ডা. রাণী জামান ঢাকা পোস্টকে বলেন, যমজ শিশুদের সার্বক্ষণিক দেখাশুনা করছি। শিশুরা সুস্থ আছেন। তাদের দেখাশোনা করছেন সেবিকারা। 

সূত্রঃ যুগান্তর

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড