মানসিক অবসাদে জনপ্রিয় টিকটক তারকার আত্মহত্যা
  1. news-desk@nongor.news : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  2. niloy@nongor.news : Creative Niloy : Creative Niloy
  3. nisan@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  4. mdashik.ullah393@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  5. sultanashaila75@gmail.com : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  6. ronia3874@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  7. sarowar@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
মানসিক অবসাদে জনপ্রিয় টিকটক তারকার আত্মহত্যা
রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৪:২২ পূর্বাহ্ন

মানসিক অবসাদে জনপ্রিয় টিকটক তারকার আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৬৫ জন পড়েছেন

মানসিক অবসাদগ্রস্ত হয়ে জনপ্রিয় টিকটক তারকা ড্যাজারিয়া কুইন্ট নয়েস আত্মহত্যা করেছেন। ভার্চুয়াল দুনিয়ায় তিনি ‘ডি’ নামেই পরিচিত।

মৃত্যুর আগে ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করে ড্যাজারিয়া লেখেন, ‘এটা আমার শেষ পোস্ট।’ মানসিক অবসাদের কারণেই আত্মহত্যা বলে জানা যাচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের লুইসিয়ানা অঙ্গরাজ্যের ব্যাটন রাগ-এর বাসিন্দা টিকটক ব্লগার ড্যাজারিয়া কুইন্ট নয়েসের ফলোয়ার সংখ্যা ১.৪ মিলিয়ন। 

মঙ্গলবার মেয়ের মৃত্যুর খবর জানান ড্যাজারিয়া-র বাবা রহিম আল্লা। তিনি বলেন, ‘আমার মেয়েকে এত ভালোবাসা দেওয়ার জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। তবে দুর্ভাগ্যজনক ও আর আমাদের মধ্যে নেই।’

‘গো ফান্ড মি’ বলে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করে ঠিক কী ঘটেছে তা বিস্তারিত জানান ড্যাজারিয়া-র বাবা। লেখেন, ”গত ৮ ফেব্রুয়ারি সকালে ড্যাজারিয়া আমাদের ছেড়ে চলে যায়। ওকে দেবদূতদের সঙ্গে উড়ে যাওয়ার জন্য ডাকা হয়েছিল। ও আমার ছোট্ট একজন বন্ধু ছিল। আমি ওঁকে কবর দেওয়ার জন্য প্রস্তুত ছিলাম না। ও খুব হাসিখুশি থাকত। আমি যখন বাড়ি ফিরতাম, তখন ও আমায় বাড়ির সামনের রাস্তায় থেকে দেখেই খুশি হয়ে যেত। আমার এখন বারবার মনে হচ্ছে ও যদি ওর মানসিক অবসাদ নিয়ে আমার সঙ্গে একবার কথা বলত। তাহলে হয়তবা কিছু কারা যেত। আমি তোমরা হাত আবারও ধরতে চাই। এখন আমি যখন বাড়ি ফিরত, তখন আমার জন্য অপেক্ষা করার আর কেউ থাকবে না। এখন আমাকে তোমার দেবদূতদের সঙ্গে উড়ে যেতে দিতেই হবে। শুধু জানবে বাবা তোমায় খুব ভালোবাসে।”

সূত্রঃ যুগান্তর

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড