ব্রিজ থেকে পানিতে ফেলে দেয়া ১৫ মাসের জাহিদ পেল গরু
  1. news-desk@nongor.news : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  2. niloy@nongor.news : Creative Niloy : Creative Niloy
  3. nisan@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  4. mdashik.ullah393@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  5. sultanashaila75@gmail.com : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  6. ronia3874@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  7. sarowar@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
ব্রিজ থেকে পানিতে ফেলে দেয়া ১৫ মাসের জাহিদ পেল গরু
শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ০৮:১৪ অপরাহ্ন

ব্রিজ থেকে পানিতে ফেলে দেয়া ১৫ মাসের জাহিদ পেল গরু

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৬২ জন পড়েছেন

ভূরুঙ্গামারী উপজেলার বলদিয়া ইউনিয়নে অভাব-অনটন ও অভিমানে এক দুখিনী মা ব্রিজের উপর থেকে পানিতে ফেলে দেন ১৫ মাসের ছেলে জাহিদকে। সেই শিশুকে একটি গাভী উপহার দিয়েছে ষোলনল নামের একটি সামাজিক সংগঠন।

মঙ্গলবার বিকালে উপজেলার বলদিয়া ইউনিয়নের কাশিমবাজার গ্রামে জাহিদের পালিত মা এলিনা খাতুনের হাতে বাছুরসহ একটি গাভী তুলে দেয় কুমিল্লার ইউনাইটেড ষোলনল নামের একটি সামাজিক সংগঠন।

এ সময় শিশুটির মা জমিলার বাবার পরিবারের ৯ সদস্যের জন্য বস্ত্র ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রীও দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, গত ২৯ জানুয়ারি শিশু জাহিদকে ভরণ-পোষণ দিতে না পারায় বাবার বাড়ি থেকে সবার অজান্তে চাল বিক্রি করে ছেলে জাহিদের জন্য খাবার কিনে আনলে জমিলার বাবা তাকে বাড়ি থেকে চলে যেতে বলেন। এতে জমিলা মনের দুঃখে অভিমানে তাদের বাড়ির পাশে একটি ব্রিজ থেকে শিশু জাহিদকে অথৈ পানিতে ফেলে দেয়। প্রথমে পানিতে ডুবে গেলেও কিছুক্ষণ পর ভেসে উঠে জাহিদ।

এ ঘটনায় প্রত্যক্ষদর্শী দুলাল হোসেন সন্তোষ, স্থানীয় ফরিদুল ইসলাম এবং একজন পথচারী এগিয়ে আসে। পরে ব্রিজ থেকে নেমে পানি সাঁতরিয়ে শিশুটিকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করে তারা।

পরে  ব্রিজের পাশের রফিকুল-এলিনা দম্পতি জাহিদকে হেফাজতে নেয়। এখন পর্যন্ত এলিনার কাছেই রয়েছে সেই ১৫ মাসের শিশু জাহিদ।

এলিনা জানান, এনজিওটির দেয়া জাহিদের গাভীটি আমি সযত্নে লালন-পালন করব। এজন্য সংগঠনের সবাইকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, আমি জাহিদের সত্যিকারের মা হতে চাই। এজন্য সবার সহযোগিতা কামনা করেন। তবে এসবের পরেও যদি জাহিদের মা জমিলা তার শিশুকে ফিরিয়ে নিতে চায় তাহলে আমি আনন্দচিত্তে তাকে দিয়ে দেব।

সংগঠনের প্রধান সমন্বয়কারী জাকারিয়া বলেন, যুগান্তর অনলাইন ও প্রিন্ট ভার্সনসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে খবরটি দেখে আমার হৃদয়ে নাড়া দেয় এবং মানবিকতার টানে জাহিদ এবং তার মাকে সহযোগিতা করার জন্য ছুটে আসি। যেহেতু শিশু জাহিদের ভরণ-পোষণের দরকার তাই বাছুরসহ একটি দুধেল গাভী উপহার দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, এতে জাহিদের দুধের চাহিদা মিটবে এবং বাড়তি খরচের টাকাও পাবে।

বলদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোখলেছুর রহমান শিশু জাহিদকে এনজিওর গাভী উপহার দেয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

সূত্রঃ যুগান্তর

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড