পাবনার হীরা হত্যা মামলায় পিতা-পুত্রের মৃত্যুদণ্ড
  1. news-desk@nongor.news : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  2. niloy@nongor.news : Creative Niloy : Creative Niloy
  3. nisan@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  4. mdashik.ullah393@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  5. sultanashaila75@gmail.com : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  6. ronia3874@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  7. sarowar@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
পাবনার হীরা হত্যা মামলায় পিতা-পুত্রের মৃত্যুদণ্ড
শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৯:৩৫ পূর্বাহ্ন

পাবনার হীরা হত্যা মামলায় পিতা-পুত্রের মৃত্যুদণ্ড

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৫৫ জন পড়েছেন

পাবনা শহরের পৈলানপুর মহল্লার চাঞ্চল্যকর চাঞ্চল্যকর রায়হান চৌধুরী হীরা হত্যা মামলার রায়ে পিতা-পুত্রের মৃত্যুদণ্ড এবং অপর ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া রায়ে দণ্ডপ্রাপ্ত প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানারও আদেশ দেয়া হয়। এ মামলায় ৪ জনকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকালে পাবনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক শ্যাম সুন্দর রায় এ আদেশ দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, শহরের পৈলানপুর মহল্লার মিজানুর রহমান মিজান (৬০), তার ছেলে তুষার রহমান (২৮)। যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত ৩ জন হলেন, শহরের গোবিন্দা মহল্লার আব্দুর রশিদের ছেলে মাসুম হোসেন (৪০), কাছারীপাড়ার আজাহার আলীর ছেলে আরশেদ আলী (৩৫), পৈলানপুর মহল্লার মিজানুর রহমানের ছেলে মিশু হোসেন (৩০)।

যাদেরকে এই মামলা থেকে খালাস দেয়া হয়েছে তারা হলেন, পৈলানপুর মহল্লার মিজানুর রহমানের স্ত্রী চার্মি বেগম, উজ্জ্বল হোসেনের স্ত্রী পান্না বেগম, রওশন আলীর দুই ছেলে বকুল হোসেন ও মুকুল হোসেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৮ সালের ২৮ মে বেলা ৩টার দিকে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা পৈলানপুরের বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে রায়হান চৌধুরী হীরাকে (৪০) কুপিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় তার বাবা আজাহার আলী বাদী হয়ে পাবনা সদর থানায় ৯ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই হিফজুর আলম মুন্সী তদন্ত শেষে ৯ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।দীর্ঘ শুনানি ও সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে হত্যাকাণ্ডের এক যুগ পর মঙ্গলবার বিকেলে এ হত্যা মামলার রায় দেয়া হয়।

রায় ঘোষণার সময় যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত দুই আসামী উপস্থিত ছিলেন। বাকি আসামীরা পলাতক রয়েছেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট ইউসুফ আলী সরদার এবং আসামিপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট সনৎ কুমার।

সূত্রঃ যুগান্তর

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

টুইটারে আমরা

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড