‘পুলিশের পরামর্শেই দিহানকে একমাত্র আসামি করা হয়’
  1. news-desk@nongor.news : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  2. niloy@nongor.news : Creative Niloy : Creative Niloy
  3. nisan@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  4. mdashik.ullah393@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  5. sultanashaila75@gmail.com : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  6. ronia3874@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  7. sarowar@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
‘পুলিশের পরামর্শেই দিহানকে একমাত্র আসামি করা হয়’
সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ০৪:১৮ অপরাহ্ন

‘পুলিশের পরামর্শেই দিহানকে একমাত্র আসামি করা হয়’

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৭৯ জন পড়েছেন

রাজধানীতে মাস্টারমাইন্ডের ছাত্রী ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় পুলিশের পরামর্শেই দিহানকে একমাত্র আসামি করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন নির্যাতিতার মা। বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) স্কুলের সামনে এ ঘটনায় বিচার চেয়ে মানবন্ধন করেন সহপাঠী ও বেশ কয়েকটি নারী সংহগঠন। এ সময় তারা বলেন, ধর্ষণের শিকার হলে তার চরিত্রহননের কুৎসিত ধারা বন্ধ করা দরকার।

ধর্ষণের শিকার হলেন যে শিক্ষার্থী তার নাম তো বটেই, ৭ দিন ধরে ছবিও দেখানো হলো গণমাধ্যমে। চরিত্র নিয়ে কাঁটাছেড়া চললো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। রাজধানীর মাস্টারমাইন্ড স্কুলছাত্রী ধর্ষণের বিচার চেয়ে এই মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারীদের দাবি, নির্যাতিতার চরিত্রহরণের এই ধারা বন্ধ করতে হবে।

মানববন্ধনে অংশ নিয়ে ওই শিক্ষার্থীর মা আবারও দাবি করেন, তার মেয়ের শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন ছিল।

মানববন্ধন শিক্ষার্থীরা বলেন, আমরা শুধু একজনের ছবি দেখতেছি। একজনের ঠিকানা পাচ্ছি সে হচ্চে ইফতেখার মাহমুদ দিহানের। বাকি তিনজনের সম্পর্কে কিছুই জানা যাচ্ছে না।

এদিকে নির্যাতিতার মা বলেন, ওই ঘটনায় দিহানসহ আরো তিনজন ছিল। আমাদের বক্তব্য ছিলো বাকিদের আসামি করা হোক। কিন্তু পুলিশ প্রশাসন আমাদের বক্তব্য এড়িয়ে শুধুমাত্র দিহানকে আসামি করে।

বিচার হয় না বলেই ধর্ষণ বন্ধ হয় না- এমন মন্তব্য করে নির্যাতিতার সহপাঠীরা বলেন, দিহানের বিচার না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।

দিহানের তিন বন্ধুর ছবি প্রচার করারও দাবি জানান তারা।

সূত্রঃ সময় নিউজ

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড