চালু হয়েছে দেশের প্রথম ‘নৌকা জাদুঘর’
  1. news-desk@nongor.news : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  2. niloy@nongor.news : Creative Niloy : Creative Niloy
  3. nisan@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  4. mdashik.ullah393@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  5. sultanashaila75@gmail.com : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  6. ronia3874@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  7. sarowar@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
চালু হয়েছে দেশের প্রথম ‘নৌকা জাদুঘর’
সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ০৩:২০ অপরাহ্ন

চালু হয়েছে দেশের প্রথম ‘নৌকা জাদুঘর’

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১১ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৭৭ জন পড়েছেন

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বরগুনায় চালু হয়েছে দেশের প্রথম ‘নৌকা জাদুঘর’। নদীমাতৃক বাংলাদেশের প্রধান বাহন নৌকা। মুক্তিযুদ্ধের অনুপ্রেণার প্রতীক নৌকা। পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে দুঃসাহসিক সব অভিযানেও ব্যবহৃত হয়েছে নৌকা। নতুন প্রজন্মের কাছে হারিয়ে যাওয়া ঐতিহ্য ও বাহারি গড়নের নৌকা তুলে ধরতে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নির্মাণ করা হয়েছে এই নৌকা জাদুঘর।

জাদুঘরের নাম রাখা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু নৌকা জাদুঘর’। দেশ-বিদেশের নানা নকশার ১০০টি নৌকার দৃষ্টিনন্দন অনুকৃতি নিয়ে যাত্রা শুরু করেছে বঙ্গবন্ধু নৌকা জাদুঘর। বরগুনার জেলা প্রশাসকের প্রচেষ্টায় মাত্র ৮১ দিনের মধ্যে সম্পন্ন হয় বঙ্গবন্ধু নৌকা জাদুঘর। 

জেলা প্রশাসন ভবন সংলগ্ন ৭৮ শতাংশ জমিতে নৌকার আদলে তৈরি করা হয় জাদুঘরটি। জাদুঘরে স্থান পাওয়া  নৌকার মধ্যে রয়েছে- ডিঙ্গি, একমালই, কেরায়া, কোষা, পানসি, গয়না, কোন্দা, ঘাসি, সাম্পান, লম্বাপাদি, কাঠামী বা রপ্তানি, বাচারি, পাতাম ও বাইচের নৌকা।

নৌকা যাদুঘর দেখতে আসছেন নানা বয়সী মানুষ। এ উদ্যোগের প্রশংসা করেন তারা।

তারা জানান, এই নৌকা আমাদের ইতিহাস, এই নৌকা আমাদের চেতনা। বঙ্গবন্ধু নৌকা জাদুঘর মানুষের মধ্যে নতুন একটা মাত্রা যোগ করবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। 

আগতরা আরও জানান, গ্রামের ঐতিহ্য যে নৌকা সেইটাই এখানে এসে দেখতে পেয়েছি। উপমহাদেশের প্রথম নৌকা জাদুঘর বরগুনাতে প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় আমরা খুবই আনন্দিত।

বঙ্গবন্ধু নৌকা জাদুঘর নতুন প্রজন্মের কাছে নৌকার ইতিহাস ও ঐতিহ্য তুলে ধরতে সহায়ক হবে বলছেন জেলা প্রশাসক। 

বরগুনা জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, আমাদের নতুন প্রজন্মের কাছে বঙ্গবন্ধুকে এবং এই নৌকাকে উপস্থাপন করার জন্য আমরা উদ্যোগ নিয়েছি। 

বঙ্গবন্ধু ও নৌকার ঐতিহ্য রক্ষায় জায়গাটি বরাদ্দ দিয়েছে পৌরসভা কর্তৃপক্ষ।  

বরগুনা পৌরসভার মেয়র মো. শাহাদাত হোসেন বলেন, নৌকা জাদুঘরটি উদ্বোধন করতে পেরে আমি নিজেকে ধন্য মনে করি এবং মনে করি যে, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়ন করতে আমি সক্ষম হয়েছি।

যন্ত্রায়ণের যুগে দেশের খাল-নদী-সাগরে এখন আর ঐতিহ্যবাহী নৌকা দেখা যায় না। এই জাদুঘর ঐতিহ্যকে তুলে ধরবে। 

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড