মানচিত্রে ভারত থেকে জম্মু-কাশ্মীর বাদ!
  1. news-desk@nongor.news : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  2. niloy@nongor.news : Creative Niloy : Creative Niloy
  3. nisan@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  4. mdashik.ullah393@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  5. sultanashaila75@gmail.com : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  6. ronia3874@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  7. sarowar@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
মানচিত্রে ভারত থেকে জম্মু-কাশ্মীর বাদ!
সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ০৪:৩৭ অপরাহ্ন

মানচিত্রে ভারত থেকে জম্মু-কাশ্মীর বাদ!

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১০ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৪৭ জন পড়েছেন

বিভিন্ন রং ব্যবহার করে একটি বিশ্ব মানচিত্র প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)। সেখানে ভারত থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখকে। আর এতেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ভারতীয়রা। 

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ওয়েবসাইটে এই মানচিত্র প্রকাশ করা হয়েছে। ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, নতুন এই দুই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে ভারতের বাইরে দেখানো হয়েছে ডব্লিউএইচও’র মানচিত্রে। যেখানে পুরো ভারতকে গাঢ় নীল রংয়ে সাজানো হয়েছে, সেখানে জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখকে ছাই রং দিয়ে চিহ্নিত করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, এই ছাই রং দিয়েই চিহ্নিত করা হয়েছে আকসাই চীনকেও। তবে সেখানে রয়েছে নীল রংয়ের বর্ডার। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এই ম্যাপ প্রকাশ করা হয়েছে কোভিড-১৯ ড্যাশবোর্ডে। ওই ওয়েবসাইটে কোন দেশ করোনায় কতটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তার বিস্তারিত তথ্য দেওয়া হয়েছে।

এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দাবি, জাতিসংঘের দেয়া গাইডলাইন মেনেই তাদের মানচিত্র প্রকাশ করা হয়েছে।

তবে হু’র এমন বক্তব্য মানতে নারাজ ভারতীয়রা। তাদের দাবি যেহেতু হু’র পেছনে আর্থিক সাহায্য চীন থেকে আসে তাই এই ম্যাপ প্রকাশের পেছনে ষড়যন্ত্র রয়েছে বেইজিংয়ের। কিন্তু ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ড. হর্ষ বর্ধন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্বাহী বোর্ডের চেয়ারম্যান। তাহলে এ বিষয়টি কেন আগে চোখে পড়ল না?

উল্লেখ্য, এমন সময় ম্যাপটি প্রকাশ করা হলো যখন ভারত ও চীনের মধ্যে চরম উত্তেজনা চলছে। 

সূত্রঃ সময় নিউজ

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড