1. khulna@nongor.news : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা : মোঃ জিলহজ্জ হাওলাদার, খুলনা
  2. news-desk@nongor.news : বার্তা ডেস্ক : বার্তা ডেস্ক
  3. nisan@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  4. mdashik.ullah393@gmail.com : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  5. rabbi@nongor.news : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  6. sultanashaila75@gmail.com : Shaila Sultana : Shaila Sultana
  7. sakia@nongor.news : দৈনিক নোঙর ডেস্ক : দৈনিক নোঙর ডেস্ক
  8. ronia3874@gmail.com : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
  9. sarowar@nongor.news : অনলাইন ডেস্ক : অনলাইন ডেস্ক
প্রতিপক্ষের হামলার শিকার জবি শিক্ষার্থী ও তার পরিবার
শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ০২:০৯ অপরাহ্ন

প্রতিপক্ষের হামলার শিকার জবি শিক্ষার্থী ও তার পরিবার

প্রতিবেদকের নাম
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০
  • ১১৭ জন পড়েছেন

মাদারীপুর জেলার রাজৈন এ জমি দখল নিয়ে চলা মামলার জের ধরে  জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ও তার পরিবারের উপর হামলা করে প্রতিপক্ষের লোকজন । 

২৪ নভেম্বর (মঙ্গলবার) সকাল নয়টার দিকে  জমির দখল নিয়ে চলা মামলার জের ধরে  কয়েকজন দূবৃত্ত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের  ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের  শিক্ষার্থী সুমনের উপর হামলা করে। পরে  আহত অবস্থায় সুমনকে রাজৈর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে রাজৈর থানায় হামলা ও হুমকির বিষয়টি অবগত করে। 

হামলার শিকার হওয়া শিক্ষার্থী সুমন  জানান, আমাদের কে আমদের জমিনে থাকতে দেওয়া হচ্ছিলোনা গত মাস থেকেই।আমি যখন ঢাকায় ছিলাম তখন আমাদের বাসায় একমাস আগে ওরা হামলা চালায় ইট পাটকেল ছোড়ে এবং জীবন নাশের হুমকি দেয়। আমাকে আমার পিতা বিষয়টি জানালে আমি সেখানে যাই ও থানার ওসিকে বিষয়টি জানাই। পুলিশ আসে এবং বলে আমাদের জমিনের কাগজ দেখাতে আমরা বলি আমাদের কাছে জমির কাগজ এখন নেই (যিনি এসেছিলেন সে এসআই হাবিব) তিনি তখন বলেন জমির কাগজ কবে দিতে পারবেন?  আমরা বলি আমার কাকার কাছে কাগজ আছে তিনি আসলে কাগজ দেখাতে পারব কারণ আমরা ওয়ারিশ সূত্রে মালিক আর সব উনি সামলায়, উনি এখন মিশনে আছেন সামনের মাসের বাইশ তারিখ আসবে (মানে এই চলতি মাস) তখন এসআই তাদেরকে একমাস জমিতে যেতে বারন করে। কিন্তু তারা সেটা মানেনি তারা সেটা লঙ্ঘন করে এসে বলে কতবার পুলিশ আনবি। আমরা এসআই হাবিবকে জানাই তিনি বলেন ব্যবস্থা নিবেন কিন্তু আদৌসেটা করেনি। আমি এই মাসের ২১ তারিখ গ্রামে আসি। ২২ তারিখ জানতে পারি আমাদের নামে ১৪৪/১৪৫ এ মামলা হয়েছে জমি নিয়ে।যার জন্য হাজিরার তারিখ জানিয়ে নোটিস দিয়ে যায় একজন এএসআই বলেন কেউ ওই জমি নিয়ে কিছু করতে পারবে না। কিছু হলে আমাদের জানাতে বলে। তার পরের দিন আমাদের গৃহপালিত হাঁস মামলা করা জমিতে গেলে তারা আমাদের গালাগালি করে ।তখন এএসআইকে জানাই বিষয়টি এবং তিনি আমাকে জিডি করতে বলেন। আমি ওসি সাহেব এর কাছে যাই ওনাকে না পেয়ে ৩ ঘন্টা অপেক্ষা করি।ডিউটি অফিসার আমাদের মামলা করতে বলেন আমরা করে ওসি সাহেব এর কাছে যাই। তখন ওসি সাহেব আমাকে জিডি করার পরামর্শ দেন। তখন আমি আবার এটা পরির্বতন করি (বাদি ছিলো আমার চাচি)।

ইতিমধ্যে জিডি করতে আসার আগে মোবাইল যোগে আমার চাচাকে জানানো হয় তারা মারামারি করতে চায় আমরা যেন রেডি থাকি। আমরা সব কিছু জানাই ওসিকে। তখন ওসি আমাকে সাহায্য করবেন বলে আশ্বাস দেন ও এসআই শাহিন কে আমার বিষয়ে বলে দিবেন বলে। তখন এসআই শাহীন এর নম্বর নিয়ে আসি যদি ঝামেলা হয় তখন তাকে জানাবো। আমি আজকে সকালে যখন আমাদের চাচাদের বাড়ি যাই তখন ফিরে আসার সময় আমার উপর হঠাৎ ঝাপিয়ে পড়ে ইয়াসিন, ইবরাহিম, নিজাম, মোস্তফা, হাবিব, আর তাদের পিতা কালাম মুন্সি, সাত্তার মুন্সি, করম মুন্সি এরা দড়িয়ে ছিলো দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আর বলছিলো তলপেটে বেশি করে মার। 

হামলা চলাকালীন অবস্থা এক মহিলা ও তার ছেলে মিলে আমাকে তাদের হাত থেকে রক্ষা করে। তারপর আমি ওসিকে ফোন দেই। এসআই শাহীনকে ফোন দেই যেহেতু এরই মধ্যে গ্রামের মধ্যে সবাই জড়ো হয়ে যায়।আমার দিকে আর না এসে আমাদের বাড়িতে যায় আর হুমকি দিয়ে আসে আমার বাবাকে ঘর থেকে টেনে বের করে। পরে  প্রায় আধা ঘন্টাপর পুলিশ এলে তারা সরে পরে। 

হামলা ও গ্রেফতারের বিষয়ে রাজৈর থানার ওসি মো শেখ সাদিক বলেন,  হামলার বিষয়টি জানানোর সাথে সাথেই ঘটনাস্থলে আমরা  লোক পাঠিয়েছি।  বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।  দোষীদের আইন অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মোস্তফা কামাল বলেন,  আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ১২তম ব্যাচের ঐ শিক্ষার্থীর উপর হামলার বিষয়টি নিয়ে অবগত আছেন ও স্থানীয় রাজৈর থানা প্রশাসনের সাথে কথা বলে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে।  

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

টুইটারে আমরা

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সৌজন্যে : নোঙর মিডিয়া লিমিটেড