“নো মাস্ক, নো সার্ভিস” ব্যাপকভাবে বাস্তবায়নের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

52

করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে ‘নো মাস্ক, নো সার্ভিস’ নীতি ব্যাপকভাবে বাস্তবায়নের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রয়োজনে সামাজিক আন্দোলন, প্রচারাভিযানসহ যেভাবেই হোক এটি নিশ্চিত করতে বলেছেন তিনি।
আজ সোমবার মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে অনির্ধারিত আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই নির্দেশ দেন বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।
এর আগে গত ২৫ অক্টোবর মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানিয়েছিলেন, আসন্ন শীত মৌসুমে করোনার সংক্রমণ বাড়তে পারে, এমন আশঙ্কায় ‘নো মাস্ক, নো সার্ভিস’ নীতি বাস্তবায়ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তখন জানানো হয়েছিল, মাস্ক ছাড়া এলে কাউকে সরকারি ও বেসরকারি অফিসগুলোতে সেবা দেওয়া হবে না।

শীতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের শঙ্কা নিয়ে আজকের মন্ত্রিসভার বৈঠকেও আলোচনা হয়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আবারও করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে প্রধানমন্ত্রী প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেন বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী সতর্ক হওয়ার নির্দেশ দিয়ে বলেছেন, এখন দেশে করোনারভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতি স্বস্তিদায়ক থাকলেও তা নিয়ে সন্তুষ্ট থাকার কারণ নেই। সবাইকেই সতর্ক থাকতে হবে। বিশেষ করে ‘নো মাস্ক, নো সার্ভিস’ নীতি ব্যাপকভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে। কোনোভাবেই কেউ যাতে মাস্ক ছাড়া কোথাও না আসেন।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এ বিষয়ে ইতিমধ্যে মাঠ প্রশাসনকেও বলে দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া সব সচিবকেও বলে দেওয়া হয়েছে যাতে তাঁদের অধীন দপ্তরগুলোতে বিষয়টির প্রচার করে। এ বিষয়ে সাংবাদিকদের সহায়তা চান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।
গণপরিবহনে ‘নো মাস্ক, নো সার্ভিস’ নীতি বাস্তবায়নের বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।