ধর্ষণের পর আপসের কথা বলে গণধর্ষণ, আটক ১

48

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে দুই সন্তানের জননী এক বিধবা নারীকে (৪০) ছয়জন মিলে গণধর্ষণের অভিযোগে করা মামলার প্রধান অভিযুক্ত আলী আকবরকে (৫০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) সকালে উপজেলার নৈকাহন আখরপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার আলী আকবর ওই এলাকার মৃত বছির উদ্দিনের ছেলে।

এ ঘটনায় বুধবার (১৪ অক্টোবর) রাতে ওই নারী বাদী হয়ে আলী আকবরকে প্রধান আসামি করে ছয় জনের বিরুদ্ধে আড়াইহাজার থানায় মামলা করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কায়েমপুর এলাকার ওই বিধবা নারী একই উপজেলার বিনাইচরস্থ ভাই ভাই স্পিনিং মিলের শ্রমিকপদে কাজ করেন। গত ৭ অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে দোকানে ওষুধ আনতে যান তিনি। নৈকাহন বাজারের আনিসের মার্কেটের সামনে পৌঁছালে আলী আকবর তাকে ডাক দিয়ে বাজারের মাছের দোকানে নিয়ে যান।

পরে দোকানের সাটার বন্ধ করে তাকে ধর্ষণ করেন।ওই নারী দোকান হতে বের হওয়ার পর বাইরে থাকা একই এলাকার মৃত আব্দুল মালেকের ছেলে মোস্তফা (৫৫), একই এলাকার আনারুল (৪০) লিটন (৩২) তাকে জিজ্ঞেস করে আলী আকবরের সঙ্গে কী হয়েছে। তারপর আপস করে দেয়ার কথা বলে লিটনের পুকুর পাড়ে নিয়ে যায় তারা।

পরে রাত সাড়ে ৮টার দিকে তিনজন পালাক্রমে ওই নারীকে ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে লিটন ফোন করে শাহীন (৩২) ও তরিকুল (৩৪) নামে দুজনকে ডেকে আনে। তারা ওই নারীকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যেতে চায়। এতে রাজি না হওয়ায় শাহীন ও তরিকুল তাকে জোর করে রাত সাড়ে ১০টার দিকে একই এলাকার আলী হোসেনের নির্মাণাধীন ভবনের ছাদে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

ওই নারী লোকলজ্জা ও ছেলে-মেয়ের কথা চিন্তা করে বিষয়টি গোপন রাখেন। পরবর্তীতে স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে আলোচনা করে বুধবার রাতে আড়াইহাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

আড়াইহাজার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, বিধবাকে গণধর্ষণের ঘটনায় ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। এ মামলার প্রধান আসামি আলী আকবরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।