সম্পাদকীয় বার্তা

225

আমরা দেখছি যে, হঠাৎ করে লবণ কেনার হিড়িক পড়েছে দোকানগুলোতে। প্রয়োজনের অতিরিক্ত লবণ কিনে মজুদের ঘটনা ঘটছে। বলা হচ্ছে,পেঁয়াজের ন্যায় লবণের ঘাটতি দেখা দিয়েছে দেশে। তাই লবণের দাম বাড়ছে। যা সম্পুর্নরুপে গুজব। এরুপ গুজবের মাধ্যমে কিছু অসাধু মহল তাদের স্বার্থ হাসিলের চেষ্টা করছেন। যা অত্যন্ত বেদনাদায়ক।

জনসাধারণের কাছে আবেদন, আপনারা কেউ এসব গুজবে কান দিবেন না। প্রয়োজনের অতিরিক্ত লবণ গুদামজাত করে কৃত্রিম সংকট তৈরি করবেন না। দেশের লবণের কোনো ঘাটতি নেই এই মুহূর্তে। যা শিল্প মন্ত্রণালয় জানিয়েছেন। শিল্প মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, দেশে বর্তমানে সাড়ে ৬ লাখ মেট্রিক টনের বেশি ভোজ্যলবণ মজুত রয়েছে। এর মধ্যে কক্সবাজার ও চট্টগ্রামের লবণচাষিদের কাছে ৪ লাখ ৫ হাজার মেট্রিক টন এবং বিভিন্ন লবণ মিলের গুদামে ২ লাখ ৪৫ হাজার মেট্রিক টন লবণ মজুত রয়েছে।

নিজে লবণসহ যাবতীয় গুজব থেকে বিরত থাকুন এবং অন্য কেউ যেন গুজব ছড়িয়ে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করতে না পারে সে বিষয়ে সচেতন থাকুন। কোনো দোকানী অতিরিক্ত মূল্য নিলে প্রশাসনকে জানান। দেশের প্রতি এটি আপনার দায়িত্ব। যথার্থ দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে অধিকার ভোগ করা যায়।

ধন্যবাদ প্রিয় পাঠক।
বাংলাদেশ দীর্ঘজীবী হোক।

আশিক উল্লাহ
সম্পাদক ও প্রকাশক, দৈনিক নোঙর।